ভিডিও বুস্ট করতে খরচ কেমন ? বুস্ট সার্ভিস দিয়ে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করুন !

আসসালামু আলাইকুম আশা করি সকলে ভালো আছেন। আজকের এই পোস্টটি শুধু সেই সকল ব্যক্তিদের জন্য যারা ফেসবুকে ভিউ, লাইক, বাড়াতে চান। অর্থাৎ ফেসবুকের পোস্ট বুস্ট করতে চান। এই আলোচনার মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন ফেসবুকে পোস্ট কিভাবে বুষ্ট করবেন এই সম্পর্কিত এ টু জেড আলোচনা করা হবে।

ভিডিও বুস্ট করতে খরচ কেমন
                                                                        ভিডিও বুস্ট করতে খরচ কেমন

 

ভিডিও বুস্ট করতে খরচ কেমন ? বুস্ট সার্ভিস দিয়ে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করুন !

আমি আপনাদেরকে শিখিয়ে দেবো কোন পদ্ধতিতে এবং কিভাবে আপনারা পোস্ট বুস্ট করবেন। আর কথা না বাড়িয়ে চলন শুরু করা যাক।এর পাশাপাশি আরও বলছি যে এই পদ্ধতিটি । আনুমানিক নয়। এটি নিজ হাতে এক্সপেরিমেন্ট করে রেজাল্ট পেয়েছি । হান্ডেট পার্সেন্ট গ্যারান্টি দিচ্ছি যে আপনারা আমারে আলোচনা অনুযায়ী কাজ করে সফল হবেন।।

পোস্ট বুষ্ট কি?

আপনাদেরকে সর্বপ্রথম জানতে হবে যে পোস্ট বুষ্ট আসলে কি..? পোস্ট বুষ্ট হলো ফেসবুকে আপনার কোন ফটো পোস্ট করেছেন। লাইক বাড়ছে না বা, সেটি ভিউ হচ্ছে না। এই সমস্যার সমাধানের জন্য আপনারা পোস্ট বুষ্ট করতে পারবেন। যার মাধ্যমে আপনার ফটো বা ভিডিওটি ভাইরাল হবে।

কিভাবে ফেসবুক পোস্ট বুস্ট করবেন?

পোস্ট বুস্টের প্রথম পদ্ধতি : সর্বপ্রথম আপনারা আপনাদের ফেসবুক অ্যাপ্লিকেশন অ্যাপটি ওপেন করবেন। তারপর ডান পাশে প্রোফাইলের যে আইকনটি আছে সেখানে ক্লিক করবেন। এরপর আপনার প্রোফাইলের নামের উপর ক্লিক করবেন।


এরপর আপনি আপনার পোস্টগুলো দেখতে পাবেন। আপনি আপনার যে পোস্টটি বা যেই ফটোটি বোস্ট করতে চাচ্ছেন। সেই ফটো বা ভিডিওর নিচে দেখুন বোষ্ট নামক অপশন আছে। সেই বোস্ট অপশন এর ওপর ক্লিক করবেন। এরপর নিচে ইস কল করলে দেখতে পাবেন গোল (Goal)নামক অপশন ।৷ একটু নিচের দিকে সি মোর অপশনে ক্লিক করবেন।

(১)এরপর দেখবেন সর্বপ্রথম লেখা আছে গেট মেসেজ যদি আপনারা কোন পণ্য সেল করতে চান কাস্টমারের কাছ থেকে মেসেজ পেতে চান তাহলে এই অপশনটি চালু করে দিবেন।

(২)তারপরে দুই নম্বর অপশনে লেখা আছে গেট মোর এনগেজমেন্ট। অর্থাৎ আপনি যদি এই পোস্টে অধিক লাইক পেতে চান তাহলে এই অপশনটি চালু করবেন।

(৩)এরপর দেখবেন গেট কলস(Get more calls) নামক অপশন আছে। এটা আপনারা চাইলেও দিতে পারেন না দিলেও সমস্যা নাই।
এরপর আপনারা একটু নিচের দিকে নামবেন।

(৪)লেখা আছে দেখবেন স্পেশাল গেট ক্যাটাগরি (special get catagori) এইখানে ক্লিক করবেন। দেখবেন কিছু অপশন আসবে। প্রথম অপশনটি দিতে পারবেন যদি আপনি পলিটিক্স নিয়ে কোন পোস্ট করেন। দ্বিতীয় অপশনটি আপনি চালু করতে পারবেন যদি আপনি কোন বাড়ি কেনাবেচা করেন। এরপরে তৃতীয় অপশনটি আপনি চালু করতে পারবেন যদি কোন চাকুরি বিষয়ে আপনি পোস্ট করেন। আপনি যে বিষয়ে পোস্ট করবেন সেটাতে ক্লিক করে দিবেন।

(৫)এরপরে আপনারা দেখতে পাবেন যে মেসেঞ্জার এবং হোয়াটসঅ্যাপ নামক দুইটা অপশন আছ। আপনারা যেটাতে মেসেজ নিতে চান সেটাতে ক্লিক করে দিবেন তাহলেই সেট হয়ে যাবে ।

(৬) এরপরে দেখতে পাবেন ওয়েলকাম মেসেজ (Welcome Massage) এটা হচ্ছে সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ। এর ওপরে ক্লিক করলে আপনার বুঝতে পারবেন। এরপর দেখবেন যে ওইখানে কিছু প্রশ্ন থাকবে। মনে করুন বিক্রি করবেন তো ফোনের কালার টা তারপরে ফোনের মডেল সবকিছু দিতে পারবেন। সবকিছু দেওয়ার পর (save ) এ ক্লিক করবেন।

(৭)এরপরে একটু নিচের দিকে যাবেন দেখবেন (people you choose) নামক অপশন আছে এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। Edit মক একটা অপশন আছে ওইখানে ক্লিক করবেন দেখবেন লেখা আছে লোকেশন (location) এইখানে আপনি কোন দেশের মানুষকে টার্গেট করে পোস্টটি করবেন সেটা দেবেন আপনি যদি বাংলাদেশের মানুষকে টার্গেট করেন তাহলে বাংলাদেশ দেবেন যদি বাহিরের হয় তাহলে বাহিরের টা দিবেন।

আশা করি বুঝতে পেরেছেন। তারপর দেখবেন (interest)অপশন আছে ওইখানে ক্লিক করবেন এবং আপনি যদি কোন পণ্য ফেল করতে চান, যে পণ্যটি দিবেন সেই পণ্যটির নাম লিখবেন। মনে করুন আপনি পোশাক বিক্রি করবেন তো এইখানে বিভিন্ন রকমের পোশাকের ডিজাইনের নাম দিয়ে দিবেন। যাতে আপনার কাস্টমারদের বুঝতে সুবিধা হয়।

এইখানে যেকোনো পাঁচটা ক্যাটাগরি দিবেন। দেওয়ার পরে সেভ বাটনে ক্লিক করবেন। এরপরে দেখবেন (Age) অর্থাৎ বয়স অপশন আছে এইখানে আপনি কোন বয়সের লোকদের পোশাক বা কেমন বয়সের পোশাক তৈরি করে দিয়েছেন সেই রকম অনুযায়ী বয়সটা নির্ধারণ করে দিবেন।

তার পরবর্তীতে দেখবেন লেখা আছে (gender)অর্থাৎ আপনি ছেলেদের পোশাক না মেয়েদের পোশাক বানিয়েছেন সেটা অনুযায়ী লিঙ্গ টি নির্ধারণ করে বসাবেন। আপনি যদি ছেলেদের পোশাক দেন তাহলে ছেলেদের man টা বসাবেন যদি মেয়েদের পোশাক দেন তাহলে omanবসাবেন। এরপরে সেভ এড্রেস এ ক্লিক করে দিবেন তাহলে সেভ হয়ে যাবে।

(৮) এরপরে দেখবেন টাকার অপশনটা আসব। আপনি কত টাকা খরচ করে আপনার ছবিটি বা পোস্টটি বোস্ট করতে চান করতে চান। এইখানে আপনারা সর্বনিম্ন ১২০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৫০০০ টাকার পর্যন্ত অ্যামাউন্ট দিয়ে আপনার কাজটি সম্পন্ন করতে পারেন ।

এরপরে যে অপশনটা আছে সেটা অতি গুরুত্বপূর্ণ। সেটা হলো (Duretion)অর্থাৎ দিন। আপনি আপনার ছবিটি বা পোস্টটি কতদিন ধরে বোস্ট করে রাখবেন এটা এখানে নির্ধারণ করে দিবেন। এটি কিন্তু সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সেহেতু হিসাব করে আপনারা দিনটা বসিয়ে দিবেন। তারপরে দেখবেন যে ডান সাইডে উপরে দেওয়া আছে যে এই টাকার পরিমাণে কতজন ব্যক্তির কাছে এটি পৌঁছাবে।

মনে করুন আমি 5000 টাকা দিয়ে কাজটি সম্পন্ন করতে চাই। তাহলে দেখবেন উপরে ডান পাশে লেখা থাকবে যে কতজন মানুষের কাছে সেটি পৌঁছাবে। অর্থাৎ ভিউ হবে। এটি সর্বনিম (24.4k- 70.9k) View. হবে। তাই আপনাদেরকে বলব যে দিনের ওইখানে সাত দিন সিলেক্ট করবেন।


কারণ যদি আপনি সাত দিন সিলেট করেন তাহলে ফেসবুক কোম্পানি আপনার ওই ফটোটি সাত দিন ধরে বোস্ট করে দিবে। তাই সবসময়ের জন্য দিনটা সাতদিন করে দিবেন।

(৯) তারপরে দেখবেন লেখা আছে (prament Mathod) অর্থাৎ আপনার টাকাটা তারা কোত্থেকে কেটে নেবে। তারপর Add pament এ ক্লিক করে দিবেন তারপরে দেখবেন তিনটা অপশন দেওয়া আছে। সেই তিনটাতে যা দেওয়া আছে দেওয়া থাকবে। তারপরে আপনারা নেক্সটএ ক্লিক করবেন। তারপরে আমি আপনারা দেখতে পাবেন টাকাটা আপনি কার মাধ্যমে পরিশোধ করবেন। ডেবিট কার্ড অথবা ক্রেডিট কার্ড।

এইখানে কিন্তু অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে যে ডেবিট কার্ড বা ক্রেডিট কার্ডটি আন্তর্জাতিক হতে হবে অর্থাৎ international হতে হবে। অর্থাৎ যদি আপনার কার্ডে শুধু টাকা থাকে তাহলে হবে না ডলার থাকতে হবে। অবশ্যই ডুয়েট হতে হবে নয়তো হবে না। টাকা এবং ডলার উভয় থাকতে হবে।

তারপরে দেখবেন একটা বাটন রয়েছে, (I have) ওই বাটনে ক্লিক করে দেওয়ার পর next এ ক্লিক করবেন । তারপরে আপনার সেই কার্ডের নাম এবং নাম্বারটি বসাবেন তারপরে CVV নামক দুই সংখ্যার কোড থাকে সেই কোডটি বসাবেন।

তারপর save অপসনে ক্লিক করে দিবেন। তারপরে দেখবেন লেখা থাকবে( post bost) ওইখানে ক্লিক করে দিবেন। তাহলে দেখতে পাবেন সেটি সাবমিট হতে থাকবে। তারপরে আপনাদের সামনে একটা অপশন আসবে go to Add ওইখানে ক্লিক করে দিবেন।

তারপর তারা সেটি রিভিউ করে দেখবে যদি আপনি তাদের নিয়ম অমান্য না করেন তাহলে আপনার পোস্টটি বোস্ট করে দিবে। আর যদি অমান্য করেন তাহলে মেসেজের মাধ্যমে আপনাকে জানিয়ে দিবে। এই নিয়ম অনুসরণ করলে আপনি আপনার পোস্ট বোস্ট করতে পারবেন।।

তো বন্ধুরা এই ছিল আমার আজকের আলোচনার বিষয়। আশা করি আপনারা এটাই উপকৃত হবেন। ধন্যবাদ সবাইকে। আরো সব নতুন নতুন আলোচনা নিয়ে আপনাদের মাঝে আবার হাজির হব। সুস্থ থাকবেন ভালো থাকবেন আল্লাহ হাফেজ।

আসসালামু আলাইকুম।আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম শাওন।

Leave a Comment