ইমেইল মার্কেটিং দিয়ে প্রোডাক্ট সেল করুন।

আসসালামু আলাইকুম ।আশা করছি আপনারা সকলে ভালো আছেন। রিভিউ জোন বিডিতে আপনাদের সবাইকে স্বাগতম।এখন আমি আপনাদের কাছে ইমেইল মার্কেটিং নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।আমাদের মনে অনেক প্রশ্ন জাগে।যেমনঃইমেইল মার্কেটিং কাকে বলে? ইমেইল মার্কেটিং কি?ইমেইল মার্কেটিং কিভাবে করবেন?কিভাবে ইমেইল মার্কেটিং করবেন?

আজকে আমি আপনাদের বলবো যে কিভাবে ইমেইল মার্কেটিং করতে হয় । আসলে ইমেইল মার্কেটিং ব্যাপারটিকে মার্কেটার আগে যেমনটা গুরুত্ব দিত এখন খুব বেশি গুরুত্ব দেন না। কিন্তু যারা একবার এই মার্কেটিং করার মজা পেয়েছেন , তারা সফলতার সাথে দীর্ঘদিন ধরেই ইমেইল মার্কেটিং করতেছেন।

আপনি বিভিন্ন জায়গায় খেয়াল করলেই দেখতে পারবেন, আপনার ইমেইলে বিভিন্ন জায়গা থেকে ইমেইল আসছে, আর সেই ইমেইলের মধ্যে বিভিন্ন পণ্যের ছবি, লিংক এবং কেনার জন্যে একটি বাটন থাকে। আপনি সেই বাটনে ক্লিক করলেই নির্দিষ্ট একটি ওয়েবসাইটের ওই পেজে চলে যাবেন। এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের সেলস ফানেল তৈরি করে আপনি ইমেইল মার্কেটিং করতে পারেন। চলুন কথা না বাড়িয়ে আমরা আমাদের মুল আলোচনা শুরু করি।

ইমেইল মার্কেটিং দিয়ে প্রোডাক্ট সেল করুন।
                                                                                        ইমেইল মার্কেটিং দিয়ে প্রোডাক্ট সেল করুন।

 

ইমেইল মার্কেটিং কি?

ইমেইল মার্কেটিং করতে নামার পূর্বশর্ত হচ্ছে, ইমেইল মার্কেটিং কাকে বলে সেটা জানা। আসলে ইমেইল মার্কেটিং হচ্ছে ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটু পুরনো কিন্তু অনেক কার্যকরী সাইট। যেকোন ব্যবসার জন্যে আপনি চাইলে ইমেইল মার্কেটিং করতে পারবেন।

আপনি যদি খুব সহজে এটি বিষয়টি বুঝতে চান তাহলে বলা যায় যে, আপনার কাস্টমার যারা আছে, বা আপনার পণ্য কিনতে পারে এমন সব মানুষের ইমেইলে আপনার পণ্য কিংবা ব্যবসা সম্পর্কে বিভিন্ন অফার বা তথ্য পাঠানো। এই আপনি মানুষকে ইমেইল করার মাধ্যমে আপনার পণ্য বা ব্যবসার মার্কেটিং করলেন, এই বিষয়টিকে ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভাষায় ইমেইল মার্কেটিং বলে।

ট্রানজেকশনাল ইমেইল মার্কেটিং কি?


ইমেইল মার্কেটিং এ আপনার পুরাতন এবং নতুন কাস্টমারদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করাটা খুবই জরুরী। আর যারা আপনার পণ্য একবার হলেও কিনেছে, মনে রাখবেন, তারা আপনাকে বিশ্বাস করেছেন, আপনার পণ্যে বিশ্বাস করেছেন, তাই তারা কিনেছেন।

এখন আপনি যদি তাদের কাছে নতুন করে কোন পণ্য বিক্রি করতে চান ।তাহলে আপনাকে অবশ্যই তাদের সাথে কানেক্টেড থাকতে হবে। আর পুরনো কাস্টমারদেরকে টার্গেট করে ।নতুন ইমেল মার্কেটিং ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে ইমেল পাঠানোর প্রক্রিয়া ডিজিটাল মার্কেটিং এর ভাষায় ট্রানজেকশনাল ইমেইল মার্কেটিং বলা হয়।

ডিরেক্ট ইমেইল মার্কেটিং কি?


এটিও ইমেইল মার্কেটিং এর একটি অন্যতম মাধ্যম। এটি আসলে নতুন পণ্যের প্রমোশন অথবা নতুন কাস্টমার খুঁজে বের করার কাজে ব্যবহার করা হয়। নতুন নতুন মানুষের ইমেইলে পণ্যের অফার কিংবা ব্যবসা সমন্ধে জানিয়ে ইমেইল করা হয় এই পদ্ধতিতে। আর এই যে সরাসরি কোন মানুষ কে ইমেইল করা হয়, তাই এটিকে ডাইরেক্ট ইমেইল মার্কেটিং বলা হয়।

আরেকটা বিষয় খেয়াল করুন এই মার্কেটিং কিছুটা আলাদাভাবে করতে হয়। আপনাকে রিসার্চ করে বের করতে হবে কোন কোন ধরনের মানুষ আপনার পণ্য কিনতে আগ্রহী হবে, আর তাদের সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য থাকতে হবে আপনাদের কাছে। আপনার একটি ইমেইল লিস্ট থাকতে হবে, যেই লিস্ট ধরে ধরে আপনি ইমেইল করবেন। একটি কথা জেনে রাখুন, আপনি রিসার্চের পিছনে যত বেশি সময় দিবেন, তত বেশি আপনার লিড জেনারেশন হবে, তত বেশি আপনার পণ্যের বিক্রি বৃদ্ধি পাবে।আর আপনার‌ ব্যাবসা বৃদ্ধি পাবে।

ইমেইল মার্কেটিং এর প্রয়োজনীয় বিষয়াবলী


আপনি চাইলেই ইমেইল মার্কেটিং করতে পারবেন না। আপনাকে অবশ্যই বেশ কিছু জিনিস জেনে, বুঝে, শিখে তারপর ইমেইল মার্কেটিং করতে হবে। এছাড়া আপনি এই ধরনের ডিজিটাল মার্কেটিং এ সফল হতে পারবেন না। আসুন আমরা ইমেইল মার্কেটিং এর প্রয়োজনীয় বিষয়াবলী গুলো ভাল ভাবে জেনে নিই।

ইমেইল এর লিস্ট তৈরি করুন


ইমেইল মার্কেটিং করতে গেলে জরুরী যে বিষয়ে মনোযোগ দিতে হবে, সেটা হচ্ছে ভেরিফাইড ইমেইল লিস্ট। আপনার কাছে যদি ইমেইল লিস্টই না থাকে তাহলে আপনি কোন ভাবেই ইমেইল মার্কেটিং করতে পারবেন না। তাহলে আপনি কিভাবে ইমেইল এর লিস্ট পাবেন?আপনি বিভিন্নভাবে এই ইমেইল কালেক্ট করতে বা কিনতে পারবেন।এখন আপনার প্রথম কাজ হচ্ছে, এই কালেক্ট করা কিংবা কেনা ইমেইলগুলো আপনার ইমেইল লিস্টে যুক্ত করা। এই যুক্ত করাটা জরুরী যেকোন ইমেইল মার্কেটিং চালানোর জন্যে।

আপনার কাজের জন্য টেমপ্লেট নির্বাচন করুন


এখন আসা যাক ইমেইলের ডিজাইনের ব্যাপারে। আসলে মানুষ এখন মিনিমাম এবং আকর্ষণীয়, এই দুইটা বিষয় একসাথে পছন্দ করেন। আপনার ইমেইলের টেমপ্লেট যত সুন্দর হবে ততবেশি মানুষ আপনার ইমেইল পড়ে আপনার ওয়েবসাইটে কিংবা ল্যান্ডিং পেজে, কিংবা প্রোডাক্ট পেজে আসতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন।

এই কাজটিই আপনাকে সহজে করে দিবে ইমেইল টেমপ্লেটইমেইল টেমপ্লেট হচ্ছে, আগে থেকে প্রস্তুত করে রাখা এমন কিছু ডিজাইন, যা অনেক রিসার্চ করার পরে, ইমেইল মার্কেটিং স্পেশালিস্টরা এবং ডিজাইনাররা বানিয়েছেন।
আপনি এখান থেকে আপনার পণ্যের সাথে যায় এমন যেকোন একটি টেমপ্লেট চয়েজ করে আপনার ইমেইল টি ডিজাইন করে ফেলতে পারবেন। জেনে রাখা ভাল যে, একটি সুন্দর এবং আকর্ষণীয় কাস্টম ইমেইল ডিজাইন আপনার পণ্যের বিক্রি অনেকগুন বাড়িয়ে দিতে পারে।

আর টেমপ্লেট ইউজ করলে আপনার নিজের ডিজাইন করার কষ্ট কম‌ হয়ে যাবে, তাছাড়া সময় বেঁচে যাবে। যা আপনি আপনার ব্যবসার অন্যান্য জরুরী কাজে ব্যয় করতে পারেন।

আকর্ষণীয় মেসেজ লেখার চেষ্টা করুন

এখন আসুন আমরা সবচেয়ে জরুরী একটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করি। আসলে একটি ইমেইলের মূল বিষয় হচ্ছে এর ভিতরে থাকা কন্টেন্ট। হ্যাঁ, ভাল ডিজাইন আপনার কাস্টমারার‌দের‌ ইমেইল পড়তে সুবিধা দিবে, কিন্তু ইমেইলের মধ্যে থাকা কন্টেন্ট যদি আকর্ষণীয় না হয় তাহলে কিন্তু মানুষ স্বাভাবিকভাবেই ইমেইল না পড়ে বের হয়ে যাবে।

আপনাকে ইমেইলের কন্টেন্টের প্রতি খুবই গুরুত্ব দেয়া উচিৎ। আপনাকে প্রফেশনাল রাইটার দিয়ে ইমেইল লিখিয়ে নেয়ার ব্যাপারে ভাবতে হবে। তবে আপনি যদি লিখতে পারেন, তাহলে আপনি নিজেই ইমেইল লিখে ফেলতে পারেন।

ইমেইল লেখার ক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে যে, আপনার কাস্টমার যেন আপনার ইমেইল পড়ে আপনার পণ্যের ব্যাপারে আকৃষ্ট হয়ে ।সেখান থেকে ক্লিক করে আপনার প্রোডাক্ট পেজে চলে আসে। কোন কাস্টমার যদি আপনার ইমেইল পড়ে ।আপনার প্রোডাক্ট পেজে না আসে আর না কিনে, তাহলে কিন্তু এই ইমেইল মার্কেটিং আপনার জন্যে ভাল না হতেও পারে।

তাই ইমেইলের মধ্যে সঠিকভাবে কল-টু-একশন বাটন দেয়া, কাস্টমার আকৃষ্ট হবে এমন ইন্টারেক্টিভ টেক্সট করতে হবে। আর প্রফেশনালি আপনার ইমেইলকে অপ্টিমাইজ করতে হবে।

সঠিক সময়ে ইমেইল পাঠাতে হবে

আপনি হয়তো ভাবতে পারেন যে, ইমেইল তো যেকোন সময়েই পাঠানো যায়। তাহলে আবার সময় মেনে কেন ইমেইল পাঠাতে হবে? আসলে মানুষ যখন একটিভ থাকে ?

তাই আপনি যদি সেই সময় গুলোতে আপনার কাস্টমারকে ইমেইল পাঠাতে পারেন, তাহলে আপনার ইমেইল ওপেন হবার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যাবে। যেমন মাঝ রাতে সবাই ঘুমে থাকেন, তাহলে এই সময়ে যদি আপনি মেইল করেন তো আপনার ইমেইল কে দেখবে? আসলে কেউই না। আপনার ইমেইল আরো অনেকের ইমেইলের ভীড়ে হারিয়ে যেতে পারে।

তবে মনে করা হয় যে, ফ্রি টাইম কিংবা সন্ধ্যার সময়ে মানুষ অনলাইনে বেশি থাকে। আপনি যদি ইমেইল মার্কেটিং করতে চান তাহলে আপনাকে সময়ের বিষয়টা গভীরভাবে চিন্তা করতেই হবে। ভালভাবে চিন্তা ভাবনা করুন তারপরে আপনার ইমেইল মার্কেটিং শুরু করুন এবং সফল হোন।

আসসালামু আলাইকুম।আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম শাওন।

Leave a Comment